এক ভরি সোনার দাম কত

এক ভরি সোনার দাম কত
 সারা পৃথিবীতে এক ভরি সোনার দাম কত

সারা পৃথিবীতেই স্বর্ণের দাম প্রতি নিয়তই ওঠানামা করে থাকে তাই নির্দিষ্ট করে বলা যায় না এক ভরি সোনার দাম কত টাকা। স্বর্ণের প্রতিদিনের দাম রাখার জন্য আপনাকে গোল্ড দামের ওয়েবসাইটগুলো রয়েছে সেখানে চোখ রাখতে হবে এছাড়াও প্রতিনিয়ত বিশ্ব বাজারে স্বর্ণের দাম বাড়ে নাকি কমে সেদিকেও নজর রাখতে হবে। 


 ১ ভরি সোনায় কত গ্রাম

 আমরা অনেকেই হয়তো এক ভরি সোনার ওজন কত গ্রাম হয়ে থাকে সেটি সঠিক ভাবে জানি না। 1 ভরি সঠিক স্বর্ণের ওজন সমান সমান 11.664 গ্রাম।  মূলত ওজন করা হয়ে থাকে ভরির হিসাবে।


এক ভরি সোনার দাম কত

সোনা মূলত 22 ক্যারেট 21 ক্যারেট 18 ক্যারেট সনাতনী পদ্ধতিতে বিক্রি হয়ে থাকে।  বিভিন্ন ক্যারেট স্বর্ণের দাম সম্পর্কে নিচে থেকে জেনে নেই।

  • ২২ ক্যারেট সোনা ৬০ হাজার ৩৬১ টাকা, 
  • ২১ ক্যারেট ৫৮ হাজার ২৮ টাকা, 
  • ১৮ ক্যারেট ৫৩ হাজার ১৩ টাকা
  •  সনাতন পদ্ধতির সোনার ভরি বিক্রি হবে ৪০ হাজার ২৪১ টাকায়।

এক ভরি সোনার ওজন কত গ্রাম
এক ভরি সোনার ওজন কত গ্রাম

সোনার ব্যবহার

প্রাচীনকাল থেকেই স্বর্ণ বিভিন্ন কাজে ব্যবহার হয়ে আসছে অলংকার তৈরীর কাজে রয়েছে সবার উপরে। নারীদের সাজগোজের জন্য স্বর্ণের অলংকার স্বর্ণের মুকুট, স্বর্ণের বিভিন্ন পুরস্কার এমনকি বর্তমান সময়ে আধুনিক কম্পিউটার যন্ত্রাংশ তৈরিতে ব্যবহার করা হয়ে থাকে স্বর্ণ। চলুন জেনে নেয়া যাক স্বর্ণ ব্যবহার এর উল্লেখযোগ্য কয়েকটি দিক সম্পর্কে।


গহনা শিল্পে সোনার ব্যবহার

সারা পৃথিবীতে যত স্বর্ণ বিক্রি করা হয় তার মধ্যে ৭৮% এর অধিক স্বর্ণ গয়না তৈরিতে ব্যবহার করা হয়ে থাকে।  বিয়ে কিংবা জন্মদিন পার্টি কিংবা অনুষ্ঠান সবখানেই শহরে তৈরি জিনিস উপহার হিসেবে দেয়ার প্রচলন প্রাচীনকাল থেকে শুরু হয় বর্তমানে চলে আসছে। 

 শুধু উপমহাদেশ গুলোতে নয় সারা পৃথিবীতেই বিয়ের সময় স্বর্ণালংকার দেয়ার রীতি না থাকলে বিয়ে পূর্ণতা পায় না এমন বলেই বিবেচিত।  অতএব সহজেই অনুমান করা যায় পৃথিবীতে প্রতিবছর কতটি বিয়ে হয় প্রত্যেকটি বিয়েতে কতগুলো স্বর্ণ ব্যবহার করা হয় এ সম্পর্কে বিস্তারিত বলার প্রয়োজন হয় না।


মুদ্রা এবং আর্থিক সহায়তা হিসাবে

সর্বাধিক ব্যবহৃত ব্যবহৃত এক্সচেঞ্জ সিস্টেম হিসাবে সোনার 6000 বছরেরও বেশি সময় ধরে ব্যবহৃত হচ্ছে। মুদ্রার জন্য পণ্য বিনিময়কারী প্রথম বাণিজ্যিক লেনদেনগুলি স্বর্ণ বা রূপার টুকরো দিয়ে তৈরি হয়েছিল।

যেহেতু এর বৈশিষ্ট্য এবং আকর্ষণ ইতিহাসের প্রায় একই রকম, তাই সময়ের সাথে সাথে এর মান আলাদা হয় না, এটি এটিকে একটি দীর্ঘমেয়াদী বিনিয়োগ করে তোলে। এটি পরিবহনযোগ্য, বিভাজ্য, টেকসই, moldালাইযোগ্য এবং অত্যন্ত মূল্যবান।

এই সিস্টেমের পরে কাগজের অর্থের প্রয়োগ ঘটেছিল, যা মালিকানাধীন স্বর্ণের মূল্য এবং পরিমাণের (সমানে বুলেট) সমতুল্য ছিল। কোনও দেশে প্রচলিত নোটগুলির পরিমাণ এবং প্রকৃত মান সেই জাতির দখলে থাকা সোনার সমতুল্য একটি ব্যাকিং থাকা উচিত। অর্থনীতিটি কেবল সোনার মূল্য দ্বারা চালিত হয় না বলে আজকের পরিস্থিতি এটি নয়।

22 ক্যারেট সোনার দাম কত
22 ক্যারেট সোনার দাম কত

পুরষ্কার, ট্রফি এবং পদক 

প্রাচীনকাল থেকে সোনা দিয়ে দামি সব জিনিসপত্র তৈরি করা হয়ে থাকে সোনা দিয়ে পুরস্কার তৈরি করার রীতি প্রাচীনকাল থেকেই চলে আসছে।  বর্তমানে সারা পৃথিবীতে বড় বড় পুরস্কারগুলোর স্বর্ণ দিয়ে আচ্ছাদিত করা থাকে যেমন ফুটবলের বিশ্বকাপ পুরুষ খাঁটি স্বর্ণ দিয়ে যমুনা চালিত করা থাকে তেমনি ক্রিকেটের পুরস্কারটিও স্বর্ণ দিয়ে আচ্ছাদিত করা। 


এর বাহিরেও রয়েছে পুরস্কার  অলিম্পিক পুরস্কারসহ সারা পৃথিবীতে বিভিন্ন সময়ে অনুষ্ঠিত অনুষ্ঠান সহ নানা ধরনের সম্মাননা অনুষ্ঠানে স্বর্ণের তৈরি ট্রফি ও পদক দেয়া হয়ে থাকে।


বৈদ্যুতিক শিল্পে সোনার ব্যবহার

এটি কেবল মুদ্রা বা বিলাসবহুল আইটেমগুলির জন্য মূল্যবান নয়, এর দৈহিক বৈশিষ্ট্য এটিকে একটি দুর্দান্ত এবং নির্ভরযোগ্য দীর্ঘস্থায়ী কন্ডাক্টর করে তোলে। দৈনন্দিন ব্যবহারের বৈদ্যুতিন ডিভাইস যেমন সেল ফোন, ক্যালকুলেটর, টিভি, জিপিএস ইউনিট এবং ট্যাবলেটগুলিতে তাদের অংশগুলিতে স্বর্ণ থাকে।

এই ধরণের বৈদ্যুতিন সরঞ্জাম খুব কম ভোল্টেজ এবং স্রোতগুলির সাথে কাজ করে এবং খুব স্বল্প পরিমাণে পরিবাহী ধাতু এবং খুব পাতলা শীটগুলির প্রয়োজন হয়। ধাতুতে ক্ষয় হওয়ার মতো কোনও ক্ষতি বৈদ্যুতিক সংক্রমণকে ব্যাহত করে।

স্বর্ণটি জারা মুক্ত এবং এ জাতীয় ছোট বৈদ্যুতিক স্রোতের প্রচলন খুব ভালভাবে পরিচালনা করে। এটি সংযোজক, কেবল, পরিচিতি, কার্ড, সুইচ এবং আরও কিছু অংশে ব্যবহৃত হয়। একটি একক মোবাইল ফোনে 50 মিলিগ্রাম সোনার পরিমাণ থাকতে পারে।


কম্পিউটার শিল্পে

এই আধুনিক ডিজিটাল যুগে, ডেটা সংক্রমণের গতি প্রতিটি কম্পিউটারের অন্যতম অগ্রাধিকার এবং এর জন্য উচ্চ মানের ড্রাইভারের প্রয়োজন। পূর্ববর্তী পয়েন্টের মতো সোনার বৈশিষ্ট্যগুলি এটিকে কোনও ডেস্কটপ বা ল্যাপটপ কম্পিউটারের অভ্যন্তরীণ উপাদানগুলির উপাদানগত উত্সাহ হিসাবে উত্সাহ দেয়।

সোনার সাথে, তথ্য এবং ডেটা স্থানান্তর দ্রুত, আরও দক্ষ এবং জারা হস্তক্ষেপের বিপদ ছাড়াই।পণ্যের গুরুত্ব এবং গুণমান এর উচ্চ ব্যয়কে ন্যায়সঙ্গত করে। সোনা মূলত কার্ড, মেমরি চিপ এবং মাইক্রোপ্রসেসরে পাওয়া যায়। এই টুকরাগুলি সহ অন্যান্য ইলেকট্রনিক আইটেমগুলি, বাজারে পুনর্ব্যবহারযোগ্য সোনার বিশাল অংশের প্রতিনিধিত্ব করে।


Post a Comment

Previous Post Next Post